1. admin@sobsomoyerkhobor.com : admin :
তিতাসে পেয়ারা খাওয়াকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ: আহত শাহিন শরীফ – সব সময়ের খবর
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:১৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কুমিল্লা মেঘনা উপজেলা ছাত্রলীগ লুটেরচর ইউনিয়ন শাখার কর্মী সভা হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী’র ৫৯ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ’র শ্রদ্ধা নিবেদন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রাইভেট কার চাপায় নিহত বিএনপির সমাবেশে জড়ো হচ্ছেন নেতাকর্মীরা কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হলেন জনাব কাইয়ুম হোসাইন। ১ কোটি ২০লক্ষ টাকা মুল্যের কোষ্টি পাথর উদ্ধার করেছে জেলার শ্রেষ্ঠ সার্কেল অফিসারঃ তালা মার্কার জয় নিশ্চিত করতে ভাইস চেয়ারম্যান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সহ অনেকেই। ডামুড্যায় পূজা মন্ডপের নিরাপত্তায় বিট পুলিশিং সভা ইতালির ইতিহাসে প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি!

তিতাসে পেয়ারা খাওয়াকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ: আহত শাহিন শরীফ

  • আপডেট সময় : রবিবার, ৫ জুন, ২০২২
  • ৩৮ বার পঠিত

তিতাসে পেয়ারা খাওয়াকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ: আহত শাহিন শরীফ >

এমরান হোসেন রিটন মেঘনা ও তিতাস প্রতিনিধি কুমিল্লা >

তিতাসে পেয়ারা খাওয়াকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

শাহিন শরীফ নামে ১ জন গুরুতর আহত হয়েছে ।

ঘটনাটি ঘটেছে ২ জুন রাত সাড়ে ১০ টায় তিতাস উপজেলার কদমতলী গ্রামে। এই বিষয়ে শাহিন শরীফের বাবা বাদি হয়ে তিতাস থানায় একটি অভিযোগ করেছেন।

সরেজমিনে ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কদমতলী গ্রামের আক্তারের ছেলে ওমর সানি না বলে শাহিন শরীফের গাছের পেয়ারা খেলে ফেলে। এটা নিয়ে উভয়েই মধ্যে তর্ক হয় এবং ওমর সানিকে কয়েকটি চড় থাপ্পর দেয় শাহিন শরীফ।

পরে ওমর সানি ফারুক মিয়ার ছেলে আঃ রহমান, পারভেজ, দুলাল মিয়ার ছেলে ওসমানসহ আরও ৪/৫ জনকে সাথে নিয়ে চাইনিজ কুড়াল, রাম দা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তার উপর হামলা করে।

গুরুতর আহত হয়ে শাহিন শরীফ বর্তমানে তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছে। ডাক্তার তাকে ঢাকা রেফার করেছে। শাহিন শরীফের বাম হাত ও গালে মোট ২৮ টি সেলাই লেগেছে।

এই বিষয়ে ওমর সানির বাবা বলেন, আমার ছেলে না হয় একটি পেয়ারা খেয়েছে, তাই বলে কি তাকে এভাবে চড় থাপ্পর মারবে। এই পর্যন্ত চারবার আমার ছেলেকে মেরেছে।

এই বিষয়ে, শাহিন শরীফ বলেন, ওমর সানি দলবল নিয়ে এসে আমাকে হত্যা করার উদ্দিশ্যে এলোপাথাড়রি কুঁপিয়ে পালিয়ে যায়। আমি তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

তিতাস থানার এস আই ইমরুল বলেন, এই ব্যাপারে আমাদের কাছে একটি অভিযোগ এসেছে তদন্ত চলমান আছে, কিন্তু এখনো পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © সব সময়ের খবর ©
Theme Customized By Shakil IT Park